আইফোনের সঙ্গে চার্জার না দেওয়ার কারণ জানাল অ্যাপল

শেয়ার সোশ্যাল মিডিয়া

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: এবার আইফো’নের সঙ্গে চার্জা’র না দেওয়ার কারণ জানাল ‘আমেরিকান টেক’ জায়ান্ট অ্যাপল। প্র’তিষ্ঠানটি বল’ছে, এসব উ’পকরণ পরিবেশদূষ’ণের জন্য দায়ী। তাই স’ম্পূর্ণ প্রাকৃতিক কারণে ‘তারা এমন সি’দ্ধান্ত নিয়েছে।

গত বছর আই’ফোনের সঙ্গে আর’ চার্জার অ্যাডাপ্টর ‘না দেওয়ার ঘোষণার পরই ‘সমালোচনা’ শুরু হয়েছিল।’ ভোক্তারা ব’লেছিল, আই’ফোনের দাম অনে’ক বেশি, তার ওপর ‘চার্জার যদি অতিরিক্ত টা’কা খরচ করে ‘কিনতে হয় তা’হলে ব্যয় আরও ‘বেড়ে যা’বে। যা অস’ন্তোষ তৈরি করেছিল। তাই অ্যাপ’ল এবার চার্জার অ্যা’ডাপ্টর না দেওয়া’র কারণ জা’নিয়ে দিল।

অ্যাপ’লের বরাত দিয়ে ভারতী’য় সংবাদমাধ্যম গেজেটস ‘নাউ এক প্রতিবেদনে ব’লেছে, পাওয়ার অ্যাডাপ্টারে প্লাস্টি’ক, কপার, টিন ও জিং’ক এর মতো উপক’রণ ব্যবহার কর’তে হয়। এসব উপকরণ পরিবেশ’দূষণের জন্য দায়ী। এ কারণে চা’র্জার সরবরাহ বন্ধের’ সিদ্ধান্ত নি’য়েছে অ্যা’পল। এতে পরিবে’শ বিপর্য’য়ের মাত্রা কিছুটা’ হলে’ও কমেছে।

অ্যাপল বল’ছে, আইফোন বক্সে চার্জিং ‘অ্যাডাপ্টর না ‘দেওয়ার মাধ্যমে ‘৮ দশমিক ৬১ লাখ টন ‘কপার, জিংক ‘ও ধাতু সা’শ্রয় হয়। ‘এ ছাড়া চার্জার ছা’ড়া আইফোনের বাক্সটি’র আকারও ছোট ‘হয়ে যায়। ফলে স’ম্পূর্ণ প্যা’কিং প্রক্রিয়াও ‘অনে’ক সহজসাধ্য এ’বং দ্রুত’ হয়।

ওই প্রতিবে’দনে আরও বলা হয়ে’ছে, আমেরিকার কুপার্টি’নো শহরে অ্যাপলের অফিস’। সেই শহরে ২০১’৯ সালে কার্বন ডাই–অক্সা’ইড নির্গ’মনকে ২৫ দশ’মিক ১ মিলিয়ন টন থেকে ‘২২ দশমিক ৬ মিলি’য়ন টনে নামিয়ে ‘এনেছি’ল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *