মুখে ব্রণ: কারণ ও সমাধান

শেয়ার সোশ্যাল মিডিয়া

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: কৈশো’রে হরমোনের’ তারতম্য তেল গ্রন্থির ওপর প্রভাব ফে’লে। ফলে এতে অ’নেকের ক্ষেত্রেই দেখা দেয় ব্রণের’ সমস্যা। কারো কা’রো ক্ষে’ত্রে এটি প্র’কট হয়ে ওঠে। স্বাস্থ্যবিষয়ক’ একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশি’ত প্রতিবেদনে কৈশো’রে ব্রণ হওয়ার কার’ণ ও তার সমাধান” দিয়েছেন ভার’তীয় ত্বক বিশেষ’জ্ঞ ডা. স্তুতি খার ‍’সুলেখা

ব্রণের সম’স্যায় গুরুত্ব ‘দেওয়া

সন্তানদে’র ব্রণ হওয়ামাত্র অবহেলা ‘না করে বিষয়টি গুরত্ব সহকারে’ দেখা। সন্তানদের বোঝাত হ’বে বিষয়টি এ”কেবারে অবহে’লার নয়। ব্র’ণ নিজ থেকে ভালো হয়ে’ গেলেও এর দাগ রয়ে যায় যা’ দূর করা কঠিন। তাই এ’ই বিষয়ে শুরু থে’কেই মনযোগ’ দেওয়া’ উচিত।

ত্ব’ক বুঝে প্র’সাধনী নি’র্বাচন

এক ‘সময় প্রসাধনীকে শুধু ‘মেয়েদের প্রয়োজন হিসেবে দেখা’ হলেও সময় বদলেছে। ব’র্তমান সময়ে ছেলে-মেয়ে উ’ভয়ই প্রসাধনী ব্যবহার’ করে। কিন্তু ত্বকে’র ধরন অনুযায়ী প্রসাধনী ভিন্নতা’ রয়েছে। সব প্রসাধনী ”ত্বকবান্ধব নয়। তাই ত্বকের ধরন বুঝে প্রসাধনী ‘ব্যবহার করতে হ’বে।

ভাজা’পোড়া ও প্রক্রিয়া’জাত খাবার বর্জ’ন

ভাজা”পোড়া, তৈলাক্ত খাবার, জাঙ্কফুড ই’ত্যাদি হরমোনে’র প্রভাব ফে’লে ও তেল নিঃস’রণ ঘটনায়। এতে’ ‘ব্রেআউট’, ‘ব্রণ, ‘সিস্ট’ ‘বা ফোঁড়া’ ই’ত্যাদি দেখা দেয়’। ভালো খাদ্যাভ্যা’স ব্রণ সমস্যাকে দূরে রাখতে’ পারে। তৈলাক্ত’ খাবার ‘ব্রেকআউট’য়ে’র ঝুঁকি বাড়ায়। গবেষ’ণায় দেখা’ গেছে প্রোটিন, দুধের’ তৈরি খাবার ই’ত্যাদি ব্রণের সমস্যাকে আর’ও মারাত্মক করে তুলতে’ ‘পারে।

সত’র্ক থাকতে হ’বে আরও যে’সব বি’ষয়ে

অনে’ক সময় ব্রণ সম’স্যা গুরুতর রূপ নেয়। হর’মোনের কারণে হওয়া’ ব্রণ গুরুতর রূপ লা’ভ করে ও এগুলো দূ’র করাও বেশ ঝা’মেলার। হ’রমোন পরিবর্তনে ‘অনেক সময় ব্রণের পাশাপাশি’ চুল পড়া, ওজন বাড়া, শরীরে’ অতিরিক্ত লোম ও’ঠার সমস্যা দে”খা দেয়। এই ধরনের স’মস্যা দেখা দিলে অ’বশ্যই গুরুত্ব সহকা’রে দেখা উচিত’।

পরিচ্ছ’ন্নতা জরুরি”

শরীরচর্চা, শারীরিক কর্মকাণ্ড বা বাইরে’ থেকে ফিরে অবশ্যই ত্বক ভা’লো মতো পরিষ্কার ‘করতে হবে। কার’ণ ঘাম ত্বকের লোমকূপ ‘আবদ্ধ করে ফেলে’ ও ব্রণ’ সৃ’ষ্টি হ’য়।

ব্রণের সম’স্যায় আরও ‘যা মনে রাখা প্রয়োজ’ন

ত্বকের প্র’সাধনী যেমন- লোশন বা মেইকআপ ই’ত্যাদি নির্বাচনের ক্ষেত্রে ‘নন’-কমেডোজেনিক’ বা ‘একনি’জেনিক’ নয় এমন প্রসাধনী” বেছে নি’তে হবে। এগুলো ‘লোমকূপকে আব’দ্ধ করে না। ফলে ত্বকে স’মস্যা দেখা দেয় ‘না।

চুলের জেল অনে’ক সময় অ্যালার্জির ‍সৃষ্টি করে’। এটি যেন মুখে না লাগে সে বিষ’য়ে লক্ষ্য রাখতে হবে।’ ব্রণ খোঁচানো বা চাপ’লে আক্রান্ত ‘জায়গায় স্থায়ী দা’গও তৈরি হতে ‘পারে।

ব্রণে’র সমস্যা দেখা দিলে ত্বক ‘বিশেষজ্ঞরা সাধা’রণত বেঞ্জয়েল পারঅ’ক্সাইড, রেটিনয়েড, স্যা’লিসাইলিক অ্যাসিড’ সমৃদ্ধ প্রসা’ধনী ব্যবহার করতে পরামর্শ দে’ন। তাই ত্বক ব্রণমুক্ত ‘না হওয়া পর্যন্ত চি’কিৎসকের পরামর্শ ‘নিয়ে ব্যবহার চালিয়ে ‘যেতে হবে। নির্দিষ্ট সময়ের ‘আগে ব্যবহার বন্ধ ক’রে দিলে পুনরা’য় ব্রণ ফিরে ‘আসার ঝুঁকি ‘থা’কে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *