সুন্দরবনে দু’জেলেকে ধরে নিয়ে গেছে বাঘ, আরেকজন নিখোঁজ

শেয়ার সোশ্যাল মিডিয়া

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জ কাছিকাটা এলাকা থেকে দু’জেলেকে বাঘে ধরে নিয়ে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) বিকেলে তাদের সাথে থাকা অপর এক জেলে মুঠোফোনে এ তথ্য জানিয়েছে। তবে, কথা বলার কিছুক্ষণ পর থেকেই ওই জেলের মুঠোফোন নম্বরও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) বিকেল পর্যন্ত ওই দুই জেলের কোনো সন্ধান পাওয়া যায় নি। এমনকি খবর জানানো অপর জেলেরও কোনো খোঁজ পাওয়া যায় নি।

যদিও বন বিভাগের পক্ষ থেকে দুই জেলেকে বাঘে ধরে নিয়ে যাওয়ার খবর নিশ্চিত করতে পারেনি।

বাঘে ধরে নিয়ে যাওয়া দু’জন হলেন- সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী ইউনিয়নের পশ্চিম কৈখালী গ্রামের কফিল উদ্দিনের ছেলে রতন (৪২) ও একই গ্রামের মনো মিস্ত্রি নামে এক ব্যক্তির ছেলে মিজানুর রহমান (৪০)। এ ঘটনায় মুঠোফোনে খবর জানানো নিখোঁজ অপর জেলে হলেন আবু মুসা (৪১)। তিনি জয়াখালি গ্রামের সাত্তারের ছেলে।

এদিকে, সাতক্ষীরার সুন্দরবন সংলগ্ন শ্যামনগর উপজেলার উপকূলীয় অঞ্চলে বাঘ আতঙ্ক বিরাজ করছে। ট্রলার ড্রাইভার ও পর্যটক সূত্রে পাওয়া খবরে বুধবার উপজেলার কলবাড়ি ও দাতনেখালীর হুলোর মোড়ের বিপরীতে সুন্দরবনে একটি বাঘকে নদী সংলগ্ন খাল পার হতে দেখা যাওয়ার পর এ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এরপরই বন বিভাগের সহযোগিতায় ভিলেজ টাইগার রেসপন্স টিম ও সিপিজির পক্ষ থেকে এলাকাবাসীকে সতর্ক থাকতে মাইকিং করা হয়েছে। একইভাবে বনবিভাগের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট এলাকায় টহলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে, এলাকাবাসী বলছে, বাঘটিকে যদি গহীন বনে পাঠিয়ে দেওয়া না যায়, তাহলে যে কোনো সময় বাঘটি লোকালয়ে ঢুকে পড়তে পারে।

কদমতলা ষ্টেশন অফিসার আবু সাঈদ বলেন, বাঘ সুন্দরবনে থাকবে-চলবে, এটাই স্বাভাবিক। তবে বাঘ যাতে লোকালয়ে ঢুকে পড়তে না পারে সেজন্য বনবিভাগ সহ সংশ্লিষ্ট বিডিআরটি, সিপিজি, বিসিএফ ও সিএফ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *