রপ্তানি করতে না পেরে পেঁয়াজ নদীতে ফেলছেন ভারতের ব্যবসায়ীরা!

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর নিউজ: ভারত সীমান্তে পেঁয়াজবোঝাই ট্রাকগুলো গত ১ সপ্তাহ ধরে বাংলাদেশের অভিমুখে দাঁড়িয়ে থাকলেও রপ্তানির কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। ফলে গতকাল রোববার ও সোমবার দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ রয়েছে। এতে আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা।

অন্যদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আসা বিভিন্ন পণ্যবাহী ভারতীয় ট্রাকের চালক বলেন, সীমান্তের ওপারে ভারতের হিলির বালুপাড়া পার্কিংয়ে পেঁয়াজবোঝাই শতাধিক ট্রাক দাঁড়িয়ে থাকতে দেখিছে। গত ১ সপ্তাহ ধরে লোড অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকার কারণে প্রতি ট্রাকে ৩-৪ টন করে পেঁয়াজ পচে গেছে। সেসব পেঁয়াজ সেখানকার ছোট যমুনা নদীতে ফেলে দিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা।

হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ জানান, ভারতীয় কর্তৃপক্ষ গত ১৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ দেয়। এরপর ১৮ সেপ্টেম্বর এক সিদ্ধান্তে তারা জানায় শুধু মাত্র ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এলসি করা পেঁয়াজ হিলি স্থলবন্দর দিয়ে রপ্তানি করা হবে। এই পরিপ্রেক্ষিতে গত শনিবার এই বন্দর দিয়ে ২৪৬ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। যার মধ্যে অধিকাংশই পচে নষ্ট হয়েছে। তবে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এলসি করা ১০ হাজার মেট্রিকটন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি না দেওয়ায় এসব পেঁয়াজের চালান সীমান্তে আটকে আছে।

তিনি বলেন, আমরা ভারতের ব্যবসায়ীদের বলেছি আপনারা আপনাদের সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করুন। আজ-কালের মধ্যে আমাদের পেঁয়াজ দেওয়া না হলে আমরা এই পচা পেঁয়াজ নেব না বলে জানিয়েছি। এই পেঁয়াজ নিয়ে ইতোমধ্যে আমরা অর্ধকোটি টাকা লোকসানে পড়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.