স্বামীকে সাহায্য করার কথা বলে স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: মুমূর্ষু স্বামীকে রক্ত সংগ্রহ করে দেয়ার কথা বলে স্ত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত ও তার সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

আজ ২৬ সেপ্টেম্বর, শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মিরপুর থানাধীন মধ্য মনিপুর পাড়াস্থ শিফা ভিলা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলো- অভিযুক্ত ধর্ষণকারী মাে. মনােয়ার হােসেন সজীব (৪৩) ও তার সহযােগী মাশনু আরা বেগম ওরফে শিল্পী (৪০)।

র‍্যাব জানায়, গত ১৫ সেপ্টেম্বর বিকেল ৪টার সময়ে ভুক্তভোগী তার অসুস্থ স্বামীকে ঢাকা সােহরাওয়ার্দী হাসপাতালে মেডিসিন বিভাগের ভর্তি করায়। দায়িত্বরত চিকিৎসক স্বামীর জন্য জরুরীভাবে রক্তের ব্যবস্থা করার পরামর্শ দেন।

ভুক্তভোগী সােহরাওয়ার্দী হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার ব্লাড ব্যাংকের সামনে গিয়ে ৩/৪ জন পুরুষ লােককে বসা দেখতে পেয়ে (0+) রক্তের বিষয়ে জানতে চাইলে মাে. মনােয়ার হােসেন সজীব রক্তের ব্যবস্থা করে দেবে বলে জানায়।

তার পরের দিন দপুর দেড়টার দিকে কৌশলে রক্তের ব্যবস্থা করে দেওয়ার নাম করে মিরপুর থানাধীন মধ্য মনিপুর পাড়াস্থ শিফা ভিলার মাশনু আরা বেগম ওরফে শিল্পীর বাসায় নিয়ে যায়। ওই বাসায় নিয়ে শিল্পীর সহযােগিতায় অভিযুক্ত সজীব ভুক্তভোগীকে ধর্ষণ করে এবং ভুক্তভোগী চিৎকার করলে গলা চেপে ধরে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। ভুক্তভোগী লােকলজ্জার ভয়ে ও স্বামীর অসুস্থতার কারণে ধর্ষণের বিষয়টি গােপন রাখে।

এরপরে গত ২৪ তারিখে অভিযুক্ত আসামি ভুক্তভোগীর স্বামীর মােবাইলে কল করে বলে রক্তের ব্যবস্থা হয়েছে আপনার স্ত্রীকে সােহরাওয়ার্দী হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় পাঠিয়ে দিন। তখন ভুক্তভোগী পুনরায় ধর্ষিত হওয়ার ভয়ে তার স্বামীকে ধষর্ণের বিষয়টি খুলে বলে।

তারপর তারা দুইজন র‍্যাব-২ এর অধিনায়ক বরাবর অভিযােগ করলে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া যায়। এ প্রেক্ষিতে র‍্যাব-২ এর আভিযানিক দল আসামিদের গ্রেফতার করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামি মাে. মনােয়ার হােসেন সজীব ধর্ষণ করার কথা স্বীকার করে। আসামি সজীব আরও জানায়, মাশনু আরা বেগম শিল্পীর সাথেও তার অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে।

আসামিদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে আরাে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে যা যাচাই বাছাই করে দেখা হচ্ছে। এছাড়া উপরােক্ত বিষয়ে মিরপুর মডেল থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হবে বলেও জানায় র‍্যাব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.