কক্সবাজার সৈকতের অনেক পয়েন্টে নেই পর্যটনবান্ধব ব্যবস্থা

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের অনেক পয়েন্টে পর্যটনবান্ধব ব্যবস্থা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর যথেষ্ট নজরদারিনা থাকায় প্রায়ই ঘটছে চুরি, ছিনতাই ও ধর্ষণসহ নানা অপরাধের ঘটনা।

সংশ্লিষ্টরা জানান, সৈকতসহ আশপাশের এলাকায় এসব ঘটনায় পর্যটনশিল্পের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে। তবে, পর্যটন এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার রয়েছে বলে দাবি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর।

করোনাভাইরাসের কারণে গত মার্চ মাসের মাঝামাঝি থেকে ১৭ই আগস্ট পর্যন্ত বন্ধ ছিল কক্সবাজারের পর্যটন স্পটগুলো। এ সময় সমুদ্র সৈকতের প্রায় সব পয়েন্টে বৈদ্যুতিক বাতিগুলো অকেজো হয়ে যায়। ফলে রাতের বেলায় সৈকত ও আশপাশের এলাকা অন্ধকারাচ্ছন্ন থাকায় ঘটছে চুরি, ধর্ষণ ও ছিনতাইসহ নানা অপরাধ।

সম্প্রতি সৈকতের লাবণী পয়েন্টে এক তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঠিক নজরদারি না থাকায় নিরাপত্তাহীনতার কথা জানিয়েছেন পর্যটকরা।

পর্যটকরা বলেন, ‘সৈকত ও আশপাশের এলাকা অন্ধকারাচ্ছন্ন থাকায় চুরি, ধর্ষণ ও ছিনতাই বেড়েছে। এই ধরণের ঘটনা ঘটতে থাকলে কক্সবাজার ভ্রমণে নিরুৎসাহিত হবেন পর্যটকরা।’

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানিয়েছেন, সমুদ্র সৈকতসহ পর্যটন স্পটগুলোতে নিরাপত্তা জোরদারের পাশাপাশি বৈদ্যুতিক বাতিগুলো অকেজো হওয়ার ব্যাপারে বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটিকে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *