অহংকারই যেন রানু মণ্ডলকে আবার পথে বসিয়ে দিলো!

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রানাঘাট স্টেশনের ভিখারি থেকে বলিউডের আকাশে উঠে গিয়েছিলেন রানু মণ্ডল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক তরুণের পোস্ট করা তার গানের ভিডিও ভাইরাল হতেই ডাক পেয়ে যান হিমেশের ছবিতে গান গাওয়ার।

রাতারাতি তারকা বনে যাওয়ার পর তার কথা বার্তায় ফুটে উঠে অহংকার। কিন্তু সেই অহংকার বেশিদিন স্থায়ী হলো না। ভাগ্যও বিট্টে করলো রানুর সঙ্গে। তাই আবার তাকে ফিরতে হয়েছে আগের ঠিকানায় সেই রানাঘাট স্টেশনেই, চলতে হচ্ছে আগের মতো মানুষের দয়া-দাক্ষিণ্যে।

ভারতের একাধিক গণমাধ্যম এমনটাই খবর প্রকাশ করছে। তবে ভারতের একটি ইংরেজি গণমাধ্যম বলছে রাণু মণ্ডল রানাঘাটেই ফিরেছেন তবে স্টেশনে নয়, বেগোপাড়ায় এক আত্মীয়ের বাসায় রয়েছেন। এবংত সঞ্চিত অর্থ দিয়েই চলছেন।

জানা গেছে, স্বামীর সাথে কাজের সন্ধানে মুম্বাইয়ে এসে অভিনেতা ফিরোজ খানের বাড়িতে দীর্ঘদিন কাজ করেন রানু। সেখানে শুদ্ধ হিন্দি শেখেন। তারপর ফিরে আসেন আবার সেই রানাঘাটে। গত বছর অতীন্দ্র নামে এক যুবক তার গান রেকর্ড করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলে তা ভাইরাল হওয়ার পর নজরে আসে হিমেশ রেশমিয়ার। তারপর নানা রিয়েলিটি শোতেও ডাক পরে রানুর।

সেই সেনসেশন থেকে আবার আগের অবস্থানে ফিরে গেছেন রাণু মন্ডল। কারণ হিসেবে তার দাম্ভিকতা ও দুর্ব্যবহারকে দায়ী করছেন নেটিজেনরা। সামান্য বিখ্যাত হতেই তিনি নিজেকে কেউকেটা ভাবা শুরু করেন। সেলফি তুলতে এলে ‘ডোন্ট টাচ’ বলে চিৎকার করে উঠেন ভক্তদের উদ্দেশ্যে। ভিখারিদের সম্পর্কেও করেন নানা বাজে মন্তব্য। এরপরই তার সাথে দূরত্ব বাড়তে থাকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজদের। ফলে আবার সেই স্টেশন চত্বরেই ফিরে আসতে হলো তাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.