ধর্ম নিয়ন্ত্রণে চীনের নতুন নিয়ম, বেসরকারিভাবে হজে যাওয়া নিষিদ্ধ!

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: মুসলিমদের হজ পালনে নতুন নির্দেশনা জারি করেছে চীনের কমিউনিস্ট পার্টির সরকার। বলা হয়েছে, ‘বেসরকারিভাবে চীনের কোনো মুসলিম হজে অংশগ্রহণ করতে পারবে না।’ ধর্মীয় বিষয়গুলি নিয়ন্ত্রণ করতে এটি চীনের কমিউনিস্ট পার্টির নতুন পদক্ষেপ বলে মন্তব্য করেছেন পর্যবেক্ষকরা।

চীনের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, চীনা ইসলামিক অ্যাসোসিয়েশন ছাড়া বেসরকারি কোনো সংস্থা হজের কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবে না। একমাত্র দেশটির ইসলামিক অ্যাসোসিয়েশনের মাধ্যমে বার্ষিক হজ পালনে পবিত্র নগরী মক্কায় যেতে হবে।

নির্দেশনায় আরও জানানো হয়, যেসব মুসলিম হজ পালনে ইচ্ছুক তাদের ধর্ম বিষয়ক প্রশাসনে আবেদন করতে হবে। আর সেই আবেদনের মাধ্যমে ধারাবাহিকভাবে হজে পাঠানোর ব্যবস্থা করবে দেশটির সরকার। সরকার ঘোষিত তালিকা অনুযায়ী হজের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

চীন সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, যথাযথ বিধি নিষেধ মেনেই হজ পালন করতে হবে। সেই সঙ্গে ধর্মীয় উগ্রবাদ থেকে দূরে থাকতে হবে। আর এ আইনটি আগামী ডিসেম্বরের ১ তারিখ থেকে শুরু হবে।

তাইওয়ানের ন্যাশনাল তাসিং হুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক শিহ চিয়েন-ইউ বলেছেন, চীন সরকারের নতুন নিয়ম ধর্মীয় বিষয়গুলিতে রাজনৈতিক নিয়ন্ত্রণের আরেকটি লক্ষণ। যার ফলে চীনের মুসলিমদের ইসলাম শিক্ষা ও ধর্মী অনুশীলন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি।

তিনি বলেন, হজ পালনের পরে ফিরে আসা চীনা মুসলমানরা তাদের অভিজ্ঞতা গুলো প্রচার করেছিল। এবং তারা স্থানীয় চীনা আলেমদের সমালোচনা করেছিল, যার ফলে হজের নতুন নিয়মের বিষয়টি উঠে আসে। হজ পালনের পর ফিরে আসাদের কারণে দেশটিতে যে প্রভাব পরে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন চীনা কমিউনিস্ট পার্টি। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published.