বাচ্চারা বাবা-মায়ের পরে নানীকেই সবচেয়ে ভালবাসে!

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: একটা অদ্ভু’ত জিনিস খেয়াল ক’রেছেন?? বাচ্চা’রা যে কোন এক ‘বিশেষ কার’ণে তার প্যাটা’রনাল গ্র্যান্ড প্যারে’ন্টস বা দাদা দা’দীর ‘থেকে ম্যাটার’নাল গ্র্যান্ডপ্যারেন্ট’স বা নানা-নানীর সা’থে ইমোশনা’লি বেশী এটাচড ‘হয় ??

অবশ্য’ই এর এক্সেপশন ও ‘আছে!! কিন্তু তার সং’খ্যা খুব কম!! এম’নকি শুধু নানা-নানী’ না, মামা, খালার সাথে’ও তাদের সম্প’র্ক ফুফু ‘চাচা দের থেকে তুল’নামুলক ভাবে’ গভীর!!

অ’থচ হওয়ার ক’থা কিন্তু উল্টাটা’!! কারণ আমাদের সমা’জব্যাবস্থা পিতৃতান্ত্রী’ক!! জন্মের পরেই আমা’দের পরিচয় হয় বা’বার নামে,’ বার্থ সা’র্টিফিকেট থেকে শু’রু করে সমস্ত ডক্যুমেন্ট’স এ নেগেটিভ ডিস্ট্রিক’ এ দাদা বাড়ির ‘জেলার নাম লেখা’ হ’য়!! শুধু তা’ই না, ম্যাক্সিমা’ম ক্ষে’ত্রেই পুত্র ‘সন্তানরা যেহেতু ‘বিয়ের পর বাবা মায়ের ‘ভিটায় বসবাস করে ‘তাই তাদের সন্তা’নরাও দাদা-দাদী, চা’চা, ফুফুর সাহচর্য, সান্নিধ্যে’ই বড় হয়!!

তবু’ও বাচ্চারা বা’বা মায়ের পরে নানী’কেই সবচেয়ে ভা’বাসে, তারপর নানাভা’ই কে, এবং তারপর ‘দাদী এবং ‘তারপর দাদা কে!’! আমি সমাজ’বিজ্ঞানী, মনোবিজ্ঞা’নী কোনটাই না, তবুও ‘সাধারন পর্যবেক্ষণ’ থেকে এর ক’য়েকটা কারণ বে”র করে’ছি!!

না’নীর সাথে, নানাবা’ড়ির সাথে এটাচমেন্ট ‘তৈরীর মেকানিজম শু’রু হয় বাচ্চার ‘জন্মেরও আগে, যখন ‘সে মায়ে’র গর্ভে থাকে ত’খন!!

এটা ‘তো সায়েন্টিফিকে’লি প্রুভড যে বাচ্চা’রা গর্ভে থাকা অবস্থায়’ও তার মায়ের মানসিক ‘অবস্থা ফিল করতে পারে, এ’ই জন্যেই ডা’ক্তাররা বলে’ন- টু বি মম ‘ যেন সবসময় হা’সি খুশি রা’খা হয়!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *