প্রতি শুক্রবার মা কেন নববধূ

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: মানুষে’র জীবনে বিভিন্ন ধরনে’র আশা-আকাঙ্ক্ষা থাক’লেও পারিপাশ্বিক পরিস্থিতির ‘কারণে সেই আশা-আকাঙ্ক্ষা ‘পূরণ হয় ‘না। পা’কিস্তানের এক নারীর ইচ্ছে ‘ছিল বিয়ের সাজেসেজে বিয়ে করবে’ন। কিন্তু পরিস্থিতির কারণে সেই’ আশা-আকাঙ্ক্ষা পূরণ হ’য়নি। তাই তিনি শুক্রবা’র হলেই নববধূর সা’জে সাজে’ন।

পাকিস্তা’নি নারী হিরা জিশান বয়স বিয়াল্লিশ হলেও গত’ ১৬ বছর ধরে প্রতি শুক্রবারে ন’ববধূ হন। চার সন্তানের জ’ননীর এমন অদ্ভু’ত শখে হতবাক পাড়া’ প্রতিবেশী। তার এই সাজের পিছনে ‘লুকিয়ে আছে করুণ কাহিনি’। সূত্র: ডেইলি পাকি’স্তান

জানা ‘গেছে, ১৬ বছর আগে হিরার মা’ অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধী’ন ছিলেন। অসুস্থ অবস্থা’য় মেয়েকে নি’য়ে চিন্তায় ছিলে’ন। শারীরিক অবস্থার অব’নতি হওয়ায় মায়ের ইচ্ছায় মৃ’ত্যুর আগে মেয়েকে নববধূর বে’শে দেখে যাবেন। তড়িঘড়ি’ করে হিরার মা’কে রক্ত ‘দেয়া ওই হাসপাতা’লের এক কর্মীকে বিয়ে করেন হি’রা। কিন্তু কিছুদিন পর অসুস্থ হি’রার মা মারা যান। শুধু তা’ই নয়, বিয়ে কয়েক বছরে’ ছয় সন্তানের ম’ধ্যে হিরা দুই সন্তা’নকে হারিয়ে আরও শোকে বিহ্বল হয়ে পড়েন। ‘দুইটা শোক তাকে পাথর করে দেয়, এতে অবসাদ গ্রাস ক’রে হিরাকে।’ সেই অবসাদ থেকে নি’জেকে বের করে আনতে প্রতি শুক্রবার নবব’ধূর বেশে নিজেকে সাজান এ’ই পা’কিস্তানি নারী। তা’র স্বামী ‘লন্ডনে থাকে’ন।

একা’কিত্ব থেকে নিজেকে বের করে আনতে এ’বং অবসাদ থেকে নিজেকে মুক্ত কর’তে- নিজেকে আনন্দ দিতেই প্রতি ‘শুক্রবার নববধূ সা’জেন হিরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *