সম্পত্তির লোভে পরিবারের ৫ জনকে খুন

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: সম্প’ত্তির লোভে দীর্ঘ দুই দশক ধরে এ’কে একে পরিবারের পাঁচ’ সদস্যকে খুন করে’ছে লীলু নামের এক ব্য’ক্তি; যা এতদিন কে’উ বুঝ’তে পারেনি। ভারতে’র উত্তর প্রদেশের গাজিয়াবাদে ঘটেছে ‘এমন নির্মম ঘটনা। যে ঘ’টনা সিনেমার গল্পকেও হা’র মা’নাবে।

হিন্দুস্তান টাই’মসের প্রতিবেদনে বলা হয়, পুলিশের হাতে’ ধরা পড়েছে ৪৮ বছর বয়সী ঘা’তক লীলু তয়াগী। প্রাথমিক’ তদন্তে পুলিশ জে’নেছে, সে নিজে সুপার কি’লারদের দিয়ে তার ভাই, দুই সৎ মেয়ে’ ও তার ভাইয়ের বাচ্চাদের ‘খুন করে’ছে।

গাজি’য়াবাদ (রুরাল) পুলিশ সুপার ইরাজ রাজা বলেন,’এতদিন ত্যাগী পরিবার বুঝ’তেই পারেনি যে লীলু এই ঘট’নার সঙ্গে যুক্ত ছিল। পু’লিশ জেনেছে,’ মূলত সম্পত্তির লোভে’ই সে একের পর এক পরিবারে’র ‘সদস্যদের খুন করেছে। তার ছেলে বি’ভোর যাতে গোটা সম্পত্তিটাই পায় সেকারণে যাবতীয় উত্তরা’ধিকারদের একে একে সরিয়ে ফেলার ছ’ক কষেছিল সে।’

পুলিশ জানায়, ভাই’ সুধীরকে প্রথম টার্গেট করেছিল লীলু। ২০০০ সালে আ’চমকাই নিখোঁজ হয়ে যায় সু’ধীর। এরপর সুধীরে’র বউ অনিতা’কে বিয়ে করে লীলু।’

সুধীরের ‘দুই মেয়েকেও সে নিজের কাছে রাখত। পুলি’শি জেরায় লীলু স্বীকার ক’রেছে, দেশি পিস্তল দিয়ে সুধী’রকে সে খুন করে’ছিল। এরপ’র সুধীরের সম্পত্তির’ পাশাপাশি তার বউকেও সে পেয়ে যায়’। কিন্তু সম্পত্তির উত্তরাধিকার তো সুধী’রের দুই মেয়ে। ২০’০৩ সালে সুধীরে’র বড়’ মেয়ে পা’য়েলকে বিষ খাইয়ে মেরে ফেলে লীলু। সে সময় লীলু জানিয়েছি’ল পোকার কামড়ে মারা ‘গিয়েছে পা’য়েল।

এরপর পায়ে’লের দিদি পারুলকে শ্বাসরোধ করে খুন ‘করে লীলু। এলাকায় রটিয়ে ‘দেয় অন্য কারোর সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছে পারুল।’ খুন ক”রে স্থানীয় খালে সে পারুলের দেহ’ ফেলে দেয়। এরপর ত্যাগীর ১৪ ব’ছরের সন্তান নীশুকে’ও ভাড়াটে খুনি দি’য়ে খুন করে খালে ‘ফেলে ‘দেয় লীলু। তখন অবশ্য থা’নায় এফআইআর করেছিলেন ত্যাগী। ‘এরপর ত্যাগীর বড় ছেলে রী’শুকেও খুন ক”রে লীলু। তবে এরপর’ থেকে লীলুর ওপর সন্দেহ হতে থাকে পরিবা’রের সদস্যদের। এরপরই তদন্তে নেমে পুলিশ গ্রেপ্তা’র করে লীলুকে। গ্রেপ্তার করার সময় লী’লু শুধু একটি’ কথা’ই বলেছিল, আমি’ খুব দুঃখিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *