‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ আমাকে নতুন জীবন দিয়েছে

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: দেশের জন’প্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘ব্যাচেলর পয়ে’ন্ট’। কাজল আরেফিন অমি পরিচা’লিত এ ধারাবাহিকটির কাবিলা, শুভ, হাবু ‘ভাই, পাশা ভাই,’ অন্তরা নামের চরি’ত্রগুলোও যেন দর্শকদের কাছে ‘জীবন্ত হয়ে উঠেছে। গত ১৩ এপ্রিল শেষ হ’য়েছে নাটকটির তৃতীয় সিজ’ন। এবার ‘নতুন সিজনের প্রস্তুতি নি’চ্ছেন নির্মাতা। খুব শিগগিরই আসবে’ চতুর্থ সিজন।

নাটকটির তৃতী’য় সিরিজে ‘অন্তরা’ চরিত্রে অভিনয় ক’রেছেন লাক্স তারকা ফারিয়া শাহ’রিন। সিজন শেষ হলেও এখনও ‘’ব্যাচেলর পয়েন্ট’র ‘ঘোরে আছেন এ অভিনেত্রী। দ’র্শকমহলে ফারিয়া এখন ‘অন্তরা’ নামেই বেশি’ পরিচিত।

গেল মঙ্গ’লবার (২ নভেম্বর) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডি’তে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে ফারি’য়া লিখেছেন, ‘রাস্তায় বের হলেই খুব’ সাধারণ মানুষ যখন মাস্ক পরা’ অবস্থায়ও আমাকে চেনে, ‘অন্তরা’ বলে ডা’ক দেয়, শান্তি পাই। খুব বিধ্বস্ত অ’বস্থায়, এলোমেলো চুল নি’য়েও ছবি তুলি। কারণ, এই মানুষটাই ওর ১’০টি বন্ধুকে খুব গর্ব করে বলবে, ‘দোস্ত দেখ অ’ন্তরার সঙ্গে ছবি তুলেছি।’ তা’র ওই সুখের হাসিটার কা’ছে আমার এলোমেলো কা’জল লেপ্টে যাওয়া চেহারায় আমাকে কেমন’ লাগছে দেখতে, ওই ভাবনা’য় একদম কিছু যায় আসে না’।’

তিনি আরও লিখে’ছেন, ‘কোথাও খেতে গেলে কোনো সাধারণ ও’য়েটার যখন সব কাজ বাদ দিয়ে দৌড়ে আ’সে কাচুমাচু করে বলে ‘আপু আপনাকে খুব ভা’লো লাগে, নার্ভাস হয়, আমতা আমতা করে বলতে গি’য়েও সাহস পায় না, আমি হেসে ব’লি, কি ছবি তুল’বেন? আসেন’ আমি সেলফি তুলি আ’পনার ফোনটা দিন। পাশে দাঁ’ড়ান।’

এই অভিনে’ত্রী মনে করেন, ‘অন্তরা’ চরিত্রটি মি’ডিয়ায় তাকে দ্বিতীয় জীবন দিয়েছে। ‘ফারিয়া লিখেছেন, ‘ব্যা’চেলর পয়েন্ট আমাকে’ নতুন জী’বন দিয়েছে, মানুষের ভা’লোবাসাকে উপভোগ করতে শিখিয়েছে। যে ভালোবা’সা আমি নষ্ট করতে চাই না।’ আমি চাই সবাই আমাকে অন্ত’রাই ডাকুক। মাসে’র ৩০ দিন কাজ করতে মন চায় না। অনেক অনেক’ ধারাবাহিক সম্মানের’ সঙ্গে না করে দেই অ’ন্তরাকে বাঁচি’য়ে রাখা’র জন্য। কাজ এখন অনে’ক করি, কিন্তু যে ভালোবাসা পাই, ‘তা মাথা পেতে নেই। অন্তরা হ’য়ে প্রতিটা মুহূর্ত বাঁচি, উপ’ভোগ করি। ‘আলহামদু’লিল্লাহ্। এর চেয়ে বড় পাও’য়া আর কিছু হতে পারে?’’

Leave a Reply

Your email address will not be published.