রিকশাচালককে ১ কোটি টাকার সম্পত্তি দান

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: ভার’তের ওড়িশার কটকের বাসি’ন্দা মিনতি পট্টনায়েক। বয়স ৬৩ বছর। ‘স্বামী ও মেয়েকে নিয়েই ছিল সংসার’। বরাবরই তাদের টুকটাক’ কাজ করে দিতেন বুদ্ধ শ্যাম’ল নামে এক রিকশাচালক। রি’কশায় পৌঁছে দিতেন গন্তব্যে। ২০’২০ সালে মৃত্যু হয় মি’নতির স্বামীর। তার পরে’র বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে মৃ’ত্যু হয় তার মেয়ের। স্বাভাবিকভাবেই এ”কা হয়ে যান বৃদ্ধা। আত্মীয়স্বজন প্রচুর’ থাকলেও মিনতির ‘একাকিত্ব ঘোঁচা’তে পাশে এসে দাঁড়াননি কেউই। ‘কিন্তু শ্যামল ও তার পরিবার বরাবরই মিন’তির পাশে ছি’লেন।

সেই কা’রণেই নিজের বাড়ি, গয়নাসহ’মোট কোটি টাকার সম্পত্তি শ্যামলকে ‘দান করার সিদ্ধান্ত ‘নেন মিনতি। তার ভাষ্য,’ ‘স্বামী-সন্তানের’ মৃত্যুর পর সম্পত্তির আর’ কোনো মূল্য নেই। আর দুঃসময়ে শ্যামল আর ও’র পরিবার ছাড়া কেউ আমার পাশে’ দাঁড়ায়নি। ওরা আমা’র জন্য প্রাণপাত ‘করে চলেছে, সেই কারণেই’ আমি আমার সমস্ত সম্পত্তি শ্যাম’লকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে’ছি। যাতে আমার মৃত্যুর প’র কেউ ওদের সমস্যা’য় না ফেলতে পারে।’

এমন উপ’হার কোনোদিন স্বপ্নেও কল্পনা ‘করেননি শ্যামল। তিনি বলেন, ‘২৫ বছর ধরে ‘পট্টনায়েক পরিবারের স’ঙ্গে রয়েছি। এই পরিবা’রের সদস্য ছাড়া আর কেউ আমার’ রিকশায় চড়েননি। ত’বে কোনোদিনও এমন ‘কিছু আশা করি’নি।’

শ্যামল আরও’ বলেন, তিনি এতবছর মি’নতির পাশে ছিলেন, আ’গামীতেও থা’কবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *