১৩০ নারীকে ‘ভালো বিয়ে দেবেন’ বলে দাস হিসেবে বিক্রি

Spread the love

বার্তাবহ চাঁদপুর ডেস্ক: তালেবান উত্তর আফগানিস্তানে কয়েক ডজন নারীকে ‘ভালো বিয়ে দেওয়ার’ আশ্বাসে বিক্রি করার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। কর্মকর্তারা আজ মঙ্গলবার এ কথা বলেন। সোমবার গভীর রাতে উত্তর জাওজান প্রদেশ থেকে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। তালেবানের প্রাদেশিক পুলিশপ্রধান দামুল্লাহ সিরাজ সাংবাদিকদের এ তথ্য দেন।

দামুল্লাহ সিরাজ সাংবাদিকদের বলেন, আমরা তদন্তের প্রাথমিক পর্যায়ে আছি। পরে এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানাব।

জাওজানের একজন জেলা পুলিশপ্রধান মোহাম্মদ সরদার মুবারিজ এএফপিকে বলেন, লোকটি তাদের অবস্থার উন্নতি করতে মরিয়া দরিদ্র নারীদের লক্ষ্যবস্তু করত। ওই ব্যক্তি ‘তোমরা একজন ধনী স্বামী পাবে’ বলে তাদের অন্য একটি প্রদেশে নিয়ে যেতেন। সেখানে তাদের দাস হিসেবে বিক্রি করা হতো। তিনি প্রায় ১৩০ জন নারীকে এভাবে পাচার করেন বলে অভিযোগ।

প্রায় তিন মাস আগে তাদের ক্ষমতায় ফিরে আসার পর থেকে তালেবান বড় শহরগুলোতে ডাকাতি ও অপহরণের মতো অপরাধগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছে। অপরাধ, স্বজনপ্রীতি এবং দুর্নীতি আফগানিস্তানে নতুন কিছু নয় কিন্তু ক্রমবর্ধমান দারিদ্র্য তালেবান সরকারের বৈধতার দাবিকে ক্ষুণ্ন করছে বলে মনে করেন অনেকে।

মঙ্গলবার আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, পাসপোর্ট বিভাগের সদস্যসহ ৬০ জনকে পাসপোর্ট-নথি জাল করার অপরাধে গ্রেপ্তার করা হয়। মন্ত্রণালয় বলছে, তারা সাময়িক রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কাবুল পাসপোর্ট অফিস বন্ধ করে দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *