ইন্টার্নশিপ প্রতিবেদন তৈরি করবেন যেভাবে

Spread the love

ইন্টার্নশিপ প্রতিবেদন
কোর্স কোড জেসিএমএস-৪০৭
কোর্স শিরোনাম –ইন্টার্নশিপ

 

তত্ত্বাবধানে
মোঃ শামসুল ইসলাম
বিভাগীয় প্রধান
জার্নালিজম,কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ
স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

উপস্থাপনায়
মাহবুব হোসেন
আইডি: ইউজি ১২-১৫-১৮-০০৮
দ্বাদশ সেমিস্টার (১৫তম ব্যাচ) বিএসএস সম্মান সমাপনী পরীক্ষা
জার্নালিজম, কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ
স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

জমা দেওয়ার তারিখ: ৩০/১২/২০২১

জয়েনিং লেটার

ইন্টার্নশিপ প্রতিবেদন
কোর্স কোড জেসিএমএস-৪০৭
কোর্স শিরোনাম –ইন্টার্নশিপ

 

অফিস প্রত্যয়ন পত্র
তত্ত্বাবধায়কের প্রত্যয়ন পত্র

আমি এই মর্মে ঘোষনা করছি যে, মাহবুব হোসেন, আইডি ইউজি ১২-১৫-১৮-০০৮, জার্নালিজম, কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর ১৫ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তিনি আমার তত্ত্বাবধায়নে অনলাইন ভিত্তিক গণমাধ্যম “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” এ ইন্টার্নশিপ সম্পন্ন করেছেন। চতুর্থ বর্ষের জেসিএমএস ৪০৭ কোর্সের অধীনে ১লা সেপ্টেম্বর(২০২০) থেকে ৩০ ডিসেম্বর(২০২১) পর্যন্ত সময়সীমা তিনি এটা সম্পাদন করেছেন।

আমি মাহবুব হোসেন এর সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।

 

মোঃ শামসুল ইসলাম
বিভাগীয় প্রধান
জার্নালিজম,কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ
স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

ঘোষণাপত্র

আমি স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর জার্নালিজম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র। চতুর্থ বর্ষের জেসিএমএস বিভাগের (৪০৭) কোর্সের আওতায় ইন্টার্নশিপ সম্পন্ন করার জন্য আমি, অনলাইন ভিত্তিক গণমাধ্যম “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” সারাদেশ বিভাগে একজন শিক্ষানবিশ সহ-সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছি।

আমার প্রতিবেদন কোন অংশ এর আগে কোথাও জমা দেওয়া হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয়, বিভাগ এবং অনলাইন ভিত্তিক গণমাধ্যম “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” এর যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করে ইন্টার্নশিপ প্রতিবেদন সম্পন্ন করেছি।

 

মাহবুব হোসেন
আইডি: ইউজি ১২-১৫-১৮-০০৮
দ্বাদশ সেমিস্টার (১৫তম ব্যাচ) বিএসএস সম্মান সমাপনী পরীক্ষা
জার্নালিজম, কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ
স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

কৃতজ্ঞতা স্বীকার

স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের দ্বাদশ সেমিস্টারের ছাত্র হিসেবে অনলাইন ভিত্তিক গণমাধ্যম “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” এর ইন্টার্নশিপ করতে এসে এমন কিছু ব্যক্তিত্বের সাহায্য, সহযোগিতা, অনুপ্রেরণা ও পরামর্শ পেয়েছি যা আমার ব্যবহারিক প্রশিক্ষণকে সহজ, সুন্দর ও কার্যকর করেছে। তাদের সকলের প্রতি আমি শ্রদ্ধা, ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।
আমি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি কোর্স তত্ত্বাবধায়ক মোঃ শামসুল ইসলাম স্যারকে। যিনি আমাকে ইন্টার্নশিপ এর ক্ষেত্রে যত্ন সহকারে নির্দেশনা দিয়েছেন।
আমি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি আমাদের বিভাগের প্রাক্তন উপদেষ্টা অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদোস স্যারকে ও বর্তমান উপদেষ্টা মনজুরুল আহসান বুলবুল স্যারকে। পাশাপাশি কৃতজ্ঞতা জানাই বিভাগের শিক্ষক রিফাত সুলতানা ম্যাম, নাসরিন আক্তার ম্যাম। পাশাপাশি কৃতজ্ঞতা জানাই বিভাগের সাবেক শিক্ষক ও অতিথি শিক্ষকদের।
আমি সবশেষ ধন্যবাদ জানাচ্ছি অধিকার “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” সম্পাদক এম এম রুহুল আমিন এবং সহযোগী সম্পাদক রাজু আহমেদকে। পাশাপাশি ধন্যবাদ জানাই সারাদেশ বিভাগের সমন্বয়ক মিলিতা বারোইকে। পাশাপাশি নিউজ রুমের যারা কাজের প্রতি এতোটা আন্তরিক ও পরিশ্রমী যা আমাকে অণুপ্রাণিত করেছে এবং কোর্সটি সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতা পেয়েছি।

সমর্পণপত্র

তারিখ: ৩১-০১-২০২১
মোঃ শামসুল ইসলাম
বিভাগীয় প্রধান
জার্নালিজম,কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ
স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ
বিষয়: “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” এর ইন্টার্নশিপ প্রতিবেদন উপস্থাপন

জনাব,
আমি আনন্দের সাথে জানাচ্ছি যে, আপনার তত্ত্বাবধানে “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” এর সারাদেশ বিভাগে একজন শিক্ষানবিশ সহ-সম্পাদক হিসেবে আমার ইর্ন্টানশিপ সম্পন্ন করেছি। এ অবস্থায় আমি আমার ইর্ন্টানশিপ প্রতিবেদনটি আপনার সদয় বিবেচনার জন্য আপনার বরাবর উপস্থাপন করলাম।
আমার বিশ্বাস এই ইর্ন্টাশিপের ফলে আমার জ্ঞান ও দক্ষতা যা অর্জিত হয়েছে তা আমার পেশাগত জীবনে যথেষ্ট ভূমিকা রাখবে। উক্ত ইন্টার্নশিপ প্রতিবেদন সম্পর্কে যে কোন ধরনের অনুন্ধানের জন্য আমি সদা প্রস্তুত থাকব।

বিনীত
মাহবুব হোসেন
আইডি: ইউজি ১২-১৫-১৮-০০৮
দ্বাদশ সেমিস্টার (১৫তম ব্যাচ) বিএসএস সম্মান সমাপনী পরীক্ষা
জার্নালিজম, কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ
স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

সূচিপত্র

• ভূমিকা
• ইন্টার্নশিপ কি
• ইন্টার্নশিপের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা
• সংবাদ ও সাংবাদিকতা
• অনলাইন সাংবাদিকতা কি
• বাংলাদেশে অনলাইন সাংবাদিকতা
• অনলাইন সাংবাদিকতার বৈশিষ্ট্য
• অধিকার ডট নিউজ সম্পর্কে কিছু কথা
• অধিকার ডট নিউজ এর নিউজ রুম কাঠামো
• ইন্টার্নশিপ থেকে যা কিছু শিখেছি
• আমার কাজের সংযুক্তি
• উপসংহার
• তথ্যসূত্র
• সংযুক্তি

 

 

 

 

ভূমিকা

তাত্ত্বিক জ্ঞান ছাড়া যেমন ব্যবহারিক জ্ঞানার্জন সম্ভব নয়, তেমনি ব্যবহারিক প্রশিক্ষণ ছাড়া তাত্ত্বিক জ্ঞান অপূর্ণ রয়ে যায়। প্রশিক্ষণকালে যে সব সমস্যার উদ্ভব হয়, সেসব সমস্যা নিরসনকল্পে পুঁথিগত বিদ্যার প্রয়োগ অপরিহার্য আবার তাত্ত্বিক জ্ঞান যথাযথ আহরিত হয়েছে কিনা তা পরিমাপ করার জন্য ব্যবহারিক প্রশিক্ষণের সফলতা এবং বিফলতার ও পর্যালোচনা প্রয়োজন। এ জন্য প্রশিক্ষণার্থীকে নিষ্ঠার সাথে অর্জিত জ্ঞান অনুশীলন করতে হয়।
ইন্টার্নশিপ হলো পড়াশোনার অন্যতম একটি অংশ। চাকরির তীব্র প্রতিযোগিতাপূর্ণ এই সময়ে অনেক চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান বা প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তিরা শিক্ষানবিশদেরকে প্রাধান্য দিতে শুরূ করেছে। ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের যাচাই-বাছাই এর যথেষ্ট সুযোগ থাকে। যে কারনে স্থায়ীভাবে নিয়োগের সময় যারা ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামে অংশ নেয় তাদের মধ্য থেকে যারা চাকরির সুযোগ পায় তারা সত্যিকার অর্থে প্রতিষ্ঠানের ভাল-মন্দ সম্পর্কে নতুনদের চেয়ে অনেক বেশি বোঝে। একজন শিক্ষার্থী অ্যাকাডেমিক যে বিষয়গুলো অধ্যয়ন করেন তার বাস্তব প্রতিফলন ঘটে ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামে।
উপরের উদ্দেশ্যসমূহ সামনে রেখে এবং প্রায়োগিক ও ব্যবহারিক জ্ঞানার্জনের জন্য জার্নালিজম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের দ্বাদশ সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের বিভাগ থেকে বিভিন্ন মিডিয়া ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে পাঠানো হয়। এ প্রেক্ষিতে আমি অনলাইন সংবাদমাধ্যম ‘অধিকার ডট নিউজের’ ব্যবহারিক প্রশিক্ষণ নেওয়ার জন্য তৈরি হই। স্বল্প সময়ের মধ্যে আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব বিভাগের তত্বাবধায়ক এবং কর্মক্ষেত্রের তত্বাবধায়কের নির্দেশনা ও উপদেশ মাফিক পালন করার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি।
প্রশিক্ষণ শেষে সম্পাদিত কার্যাবলীর বিবরণ প্রতিবেদন আকারে কয়েকটি ভাগে ভাগ করে আলোকপাত করা হয়েছে। এ প্রতিবেদনে একজন শিক্ষানবিশ হিসেবে প্রশিক্ষণকালীন সময়ে অর্জিত জ্ঞান-অভিজ্ঞতার আলোকে প্রতিষ্ঠানটির পটভূমি, লক্ষ্য-উদ্দেশ্য, কর্মসূচি, আমার সম্পাদিত কার্যাবলী, সমস্যা ও তার সমাধানের লক্ষ্যে সুপারিশমালা সম্পর্কে মতামতসহ এ প্রতিবেদনে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।

 

 

 

ইন্টার্নশিপ কি

ইন্টার্নশিপ হচ্ছে এক প্রকার কর্ম প্রশিক্ষণ। সাধারণত শিক্ষা জীবনের শেষ বর্ষ অ্যাকাডেমিক অংশ হিসেবে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গিয়ে হাতে কলমে কাজ করে থাকে। একজন শিক্ষার্থী ইন্টার্নশিপ সম্পন্ন করার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালইয়ে পোষ্ট-গ্রাজুয়েট ডিগ্রী অর্জন করে থাকে। ইন্টার্নশিপ একজন ছাত্রের কর্মে অভিজ্ঞতা প্রাপ্তি। এটি যে কোন প্রতিষ্ঠানে কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।
এছাড়া ইন্টার্নশিপের সময় শিক্ষার্থীরা যে বিষয়ে আগ্রহী সে ঐ বিষয়ের উপর ইন্টার্ন করে থাকে। এই পদটিতে বৈতনিক বা অবৈতনিক হিসেবে কাজ করে থাকেন শিক্ষার্থীরা। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে শিক্ষার্থীরা তাদের স্নাতকের শেষ পর্যায়ে এসে থিসিস বা ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করে।

আমি ব্যক্তিগতভাবে ইন্টার্নশিপের প্রতি আগ্রহী ছিলাম। কেননা ইন্টার্নশিপে হাতে কলমে ও বাস্তব অভিতার মাধ্যমে কাজ শিখা যায়। যা পরবর্তীতে আমার কর্মক্ষেত্রে ভূমিকা রাখবে বলে আমি আশাবাদী।

 

 

 

 

 

 

ইন্টার্নশিপের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা

 সময় ব্যবস্থাপনা শিক্ষা দেয়।
 পেশাদারিত্ব্য বাড়িয়ে তোলে।
 যোগাযোগ দক্ষতা বৃদ্ধি করে।
 ইন্টার্নশিপের অভিঙ্গতা চাকরির আবেদন পত্র ভারি করে তুলে।
 সেক্টর খুঁজে পেতে সহায়ক ভূমিকা রাখে।
 নেটওয়ার্ক বাড়িয়ে তুলে।

 

 

 

 

 

 

 

 

সংবাদ ও সাংবাদিকতা

সাংবাদিকতা একটি মহৎ পেশা। প্রকৃত অর্থে সাংবাদিকতা অন্য দশটি পেশার মত নয়। আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা আইএলও এর মতে, সাংবাদিকতা একটি ঝুঁকিপূর্ণ পেশা। প্রকৃত সাংবাদিকতা বস্তুনিষ্ঠ ও সততার সঙ্গে সংবাদ পরিবেশন করে থাকে। সাংবাদিকতা যেমন এক বিধস্ত জাতিকে পুনর্গঠনে অবদান রাখতে পারে, ঠিক তেমনি সাংবাদিকতার নামে মিথ্যাচার পক্ষপাতিত্ব , ও সুসংহত জাতিকে ধংসের দিকে ফেলে দিতে পারে। একজন সাংবাদিক শুধুমাত্র নিজের জীবন বাজি রেখে সমাজ ও দেশের জন্য নিরলসভাবে কাজ করা যায়।
সাংবাদিকতার প্রাণ হলো সত্য। আর সত্য কখনো বিপদজ্জনক হতে পারে না। সততাই সাংবাদিকতার মহানব্রত। একজন সাংবাদিককে ঘটনার পিছনের সত্যটাকে অনুসন্ধান করে জণগনের কাছে তুলে ধরতে হয়। বিচারবহির্ভুত হত্যা, মানবাধিকার লঙ্ঘন, ধর্মীয় সংখ্যালগু-আধিবাসী নির্যাতন, নারী ও শিশু নির্যাতন, দূর্নীতি, জঙ্গিবাদ ও রাজনৈতিক সন্ত্রাস নিয়ে অনুসদ্ধান করাই হলো প্রকৃত সাংবাদিকতা।
পৃথীবি বদলে যাচ্ছে বদলে যাচ্ছে রাজনীতি, অর্থনীতি ও মানুষের স্বাভাবিক জীবন ধারা। বদলে যাচ্ছে মানুষের চিন্তাচেতনা, রুচি-বিবেকবোধ। এই পরিবর্তনের সঙ্গে বদলে যাচ্ছে সাংবাদিকতাও। এটা দখল করে নিচ্ছে করপোরেট প্রতিষ্ঠান। আর সাংবাদিকতা হয়ে উঠেছে কর্পোরেট সাংবাদিকতা।
সাংবাদিকতা পেশার মূলভিত্তি হচ্ছে তথ্য সংগ্রহ ও প্রকাশ করা। সাধারণত বাংলাদেশের ছেলে মেয়েরা সাংবাদিকতা পড়াশুনা করতে আশার কারণ এই পেশায় ভাল ক্যারিয়ার ও উজ্জ্বল ভবিষ্যত।
এই ভাবনা থেকেই অধিকাংশ শিক্ষার্থী পড়াশুনা করে থাকে। আর যখন সাংবাদিকতায় পড়াশুনা করে সাংবাদিকতায় ক্যারিয়ার শুরু করে তখন সমাজ, রাষ্ট্র মানুষের মানবিকতার বিষয়টি নিজেদের মধ্যে গড়ে ওঠে।
সাংবাদিকতায় পড়াশুনা করে রির্পোটার, সহ-সম্পাদক, সম্পাদক, ফটোগ্রাফার, টেলিভিশন, রেডিও, সংবাদপত্রে ও অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে কাজ করার সুযোগ। বর্তমান সময়ে সাংবাদিকতার পাশাপাশি কমিউনিকেশন অফিসার, গবেষক সহ নানা পেশায় নিজের ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ তো থাকছেই।

 

 

অনলাইন সাংবাদিকতা কি

অনলাইন সাংবাদিকতা বলতে বোঝায ইন্টারনেট পত্রিকা বা গণমাধ্যমে সাংবাদিকতা। টাটকা জিনিসের স্বাদ আর চাহিদাই আলাদা। কদরও বেশি। টাটকা বা তাজা খবরের চাহিদা ও কদর তাই বেশি, পেলেই পাঠক লুফে নেন। সাংবাদিকতায় এখন প্রকৌশল বা তথ্যপ্রযুক্তিগত সুযোগ-সুবিধা অনেক বেশি। আধুনিক এই যুগে পৃথিবীর যে প্রান্তেই ঘটনা ঘটুক না কেন, তা মুহূর্তের মধ্যে আমাদের নাগালে চলে আসছে। সেই খবর তখনই পাঠকের জন্য পরিবেশন করা হচ্ছে। এই গোটা প্রক্রিয়ায় সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখছে অনলাইন পত্রিকা, আরও নির্দিষ্ট করে বললে অনলাইন সাংবাদিকতা।
অনলাইন বা ইন্টারনেট ভিত্তিক সংবাদপত্র মূলত ওয়েব সংবাদপত্র হিসাবে পরিচিত। এটি এমন এক ধরনের সংবাদপত্র যা ইন্টারনেটকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠেছে। অনলাইন সংবাদপত্র ট্র্যাডিশনাল সংবাদপত্রের মতো সংবাদের সাথে ফিচার, ছবি, অডিও, ভিডিও প্রকাশ করে এবং যে কেউ লেখা বা মতামত পাঠাতে চাইলে পাঠক সহজেই তার মতামত জানাতে পারেন।
অনলাইন সংবাদপত্রের সৃষ্টি হয়েছে ওয়েব সৃষ্টির পর থেকে। ১৯৯০ দশকের ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব (ডব্লিউ ডব্লিউ ডব্লিউ)-এর জনপ্রিয়তা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নতুর রুপে অনলাইন ম্যাগাজিন প্রকাশিত হতে থাকে। তবে কন্টেন্টগুলো ছিল ট্র্যাডিশনাল ম্যাগাজিনের মতোই, বিজ্ঞাপন, গল্প, ছবি, ফিচার ইত্যাদি। একুশ শতকে এ প্রযুক্তি আরো একধাপ এগিয়ে যায়। শুরু হয় ইলেকট্রনিক নিউজলেটারের প্রচলন। ই-মেইলের মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে তথ্য জেনে নিউজলেটারগুলো ইন্টারনেটেই প্রকাশিত হতে থাকে। এভাবেই শুরু হয় অনলাইন সংবাদপত্রের পথচলা।
বর্তমান সময়ে বাংলাদেশসহ পৃথিবীর যে কোন দেশের এমন কোন জাতীয় দৈনিক সংবাদপত্র পাওয়া কঠিন হবে যেটি অনলাইন ভার্সনে আসেনি। বাংলাদেশে এ ক্ষেত্রে প্রথম অগ্রণী ভূমিকা রাথে সাপ্তাহিক (বর্তমানে দৈনিকে রূপান্তরিত) যায়যায়দিন। এটি ১৯৯৭ সালের জানুয়ারি থেকে অনলাইনে বিশ্বের প্রথম বাংলা পত্রিকা হিসেবে আবির্ভূত হয়। বর্তমানে প্রায় সবগুলো পত্রিকারই অনলাইন ভার্সন রয়েছে।
এর পাশাপাশি বর্তমানে তৈরি হয়েছে অনেক অনলাইন সংবাদপত্র যাদের কোন হার্ড কপি নেই। আমাদের দেশে অনলাইন ভিত্তিক সংবাদপত্রের সংখ্যা কম হলেও দিনে দিনে এর পরিমাণ বাড়ছে। বাংলাদেশের প্রথম অনলাইন ভিত্তিক সংবাদপত্র হলো ‘বিডি নিউজ-২৪। যা ২০০৫ সালে এটি অনলাইনে আসে।

 

 

বাংলাদেশে অনলাইন সাংবাদিকতার ইতিহাস

সেটা ২০০৪ সাল। সিঙ্গাপুরে অবসর সময় কাটাচ্ছিলাম। একদিন হোটেলে বসে অনলাইনে সাংবাদিকতার বিভিন্ন কিছু ব্রাউজ করে দেখি অনলাইন এগিয়ে আসছে। মোটে কিছুদিন আগে মিডিয়া মুঘল রুপার্ট মারডক অনলাইনে সংবাদমাধ্যম চালুর ওপর জোর দিতে শুরু করেছেন। হঠাৎ মনে এলো বাংলাদেশেও এমন একটা কিছু করা যায় কিনা। ভাবনার সাথে সাথে কাজেই লেগে পড়লাম। মাইস্পেসডটকম এ সার্চ দিলাম একটি নাম। নিউজ২৪.কম। দেখলাম দক্ষিণ আফ্রিকায় এরই মধ্যে ওই নামে একটি অনলাইন সংবাদপত্র চালু রয়েছে। এবার বাংলাদেশের সংক্ষেপ ‘বিডি’ যোগ করে পেয়ে গেলাম একটি ডমেইন নেম। বিডিনিউজ২৪.কম। ক্রেডিট কার্ড দিয়ে কিনে নিলাম ডমেইন নেমটি। দেশে ফিরেই ঝাপিয়ে পড়লাম। একদল উদ্যমী কর্মীবাহিনী পেয়ে গেলাম যারা একটি নতুন মাধ্যমকে তাদের কর্মস্থল হিসেবে বেছে নিলো। আর দ্রুতই যাত্রা শুরু করলো বিডিনিউজ২৪.কম। যা এখন দেশে পুরো এক যুগের ইতিহাস।
ঠিক এভাবেই বাংলাদেশের অনলাইন সাংবাদিকতা চর্চার সূচনালগ্নের কথাগুলো বলছিলেন আলমগীর হোসেন।
বাংলাদেশে অনলাইন সাংবাদিকতার পথিকৃৎ হিসেবে সুপরিচিত, স্বনামধন্য এই সাংবাদিক বর্তমানে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন নিউজপোর্টাল বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম’র এডিটর ইন চিফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম অল্প সময়ের মধ্যে জনপ্রিয়তা পাওয়ার পেছনে এটাই যেমন কারণ, তেমনি একই কারণে মাত্র দুই বছরেই জনপ্রিয়তার তুঙ্গে উঠে গিয়েছিলো বিডিনিউজ২৪।
সেসময় বিডিনিউজের যারা কর্মী ছিলেন তাদের অনেকেই বর্তমানে দেশের প্রধান প্রধান সংবাদমাধ্যমে দায়িত্বশীল ভূমিকায় রয়েছেন। বাংলানিউজের কর্মীদেরও অনেকে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে গিয়ে সুনামের সঙ্গে কাজ করছেন, বলেন তিনি।ভবিষ্যতে কাগজের পত্রিকার দুর্দিনের কথা প্রসঙ্গ করে তিনি বলেন, আমাদের জরিপগুলোতে দেখতে পাই সবচেয়ে বেশি, আশি শতাংশ পাঠক স্মার্ট ফোনের মাধ্যমে বাংলানিউজ ভিজিট করছেন।
খবর জানার জন্য এখন আর কেউ সংবাদপত্র পড়ে না। যেগুলোতে কিছু বিশেষ প্রতিবেদন থাকে সেগুলোতে চোখ বোলানো হয়। না হলে দেখাই হয় না। কারণ কাগজের প্রতিটি ঘটনাই পুরনো।
সব মিলিয়ে এখন বাংলাদেশে প্রায় জাতীয় পত্রিকার ৯২ টি অনলাইন পোর্টালকে নিবন্ধনের অনুমতি দিয়েছে সরকার।
পাশাপাশি দেশের অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধন (রেজিস্ট্রেশন) একটি চলমান প্রক্রিয়া।

 

অনলাইন সাংবাদিকতার বৈশিষ্ট্য

১. তাৎক্ষণিকতা :
যে কোনো ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গেই রেডিও টিভির মতো এতে প্রকাশ করা যায়। আবার মেইলে খবরের আপডেট পাঠানোরও সুবিধা আছে। গুগল ফিডবার্নারসহ বিভিন্নভাবে এটা করা সম্ভব।
২. স্থায়িত্ব :
অনলাইনে প্রকাশিত রিপোর্টের স্থায়িত্ব অনেক বেশি। প্রকাশিত রিপোর্টগুলো আর্কাইভ করে রাখার ব্যবস্থা থাকায় তা যে কোনো সময় দেখা যায়। অন্য যে কোনো মিডিয়ার (প্রিন্ট, রেডিও ও টিভি) চেয়ে এটা খুঁজে বের করা অনেক সহজ।
৩. উপভোগ্ :
অনলাইন সংবাদপত্রে লেখার পাশাপাশি গ্রাফিক্স, অডিও, গান, ভিডিও ফুটেজ ও অ্যানিমেশন সংযুক্ত করা সম্ভব। ফলে এটা উপভোগ্য হয়ে ওঠে।
৪. ইন্টার-অ্যাকটিভ :
অনলাইন সাংবাদিকতা একটি ইন্টার-অ্যাকটিভ প্রক্রিয়া, যার মাধ্যমে পাঠকের মতামত জানা ও পাঠককে নিজের মতামত দ্বারা প্রভাবিত করার সুযোগ বিদ্যমান। এখানে একটি লেখার সঙ্গে একই বিষয়ের অন্যান্য লিংক প্রদান করা যায়। ফলে পাঠক খুব সহজেই একই বিষয়ে অন্যান্য লেখা সম্পর্কে জ্ঞানার্জন করতে পারে। তাছাড়া এতে লেখার সূত্র উল্লেখ করা যায় বিধায় পাঠক রিপোর্টের বা লেখার বস্তনিষ্ঠতা সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারে।
৫. পূর্ণাঙ্গ, সমৃদ্ধ ও সর্বশেষ সংবাদ পরিবেশনা :
অনলাইন সংবাদপত্রে জায়গার কোনো সমস্যা নেই। কিংবা রেডিও টিভির মতো সময়েরও সীমাবদ্ধতা নেই। ফলে একজন অনলাইন সাংবাদিক তার স্টোরিকে বিভিন্ন তথ্যে সমৃদ্ধ করে প্রকাশ করতে পারেন। আবার প্রিন্ট মিডিয়ায় একবার প্রকাশিত হয়ে গেলে তা আর সংশোধন করার সুযোগ থাকে না। কিন্তু অনলাইনে এ ধরনের সমস্যা নেই। এ জগতের সাংবাদিকরা ঘটনা ঘটার সঙ্গেই তা আপডেট করে দিতে পারেন।

 

“সাননিউজ২৪x৭ডটকম” নিয়ে কিছু কথা

“সাননিউজ২৪x৭ডটকম” মূলধারার গণমাধ্যমের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। যে কারনে নতুন এক প্রত্যয় নিয়ে যে পথচলা শুরু করেছিলো আর পিছন ফিরে তাকাতে হবেনা। কাজের প্রতি সততা এবং গঠনমূলক সংবাদ প্রচারের এই দৃঢ় প্রত্যয়ই তাদের সফলতার আশাবাদী।

“সাননিউজ২৪x৭ডটকম” সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বরত আছেন এমএম রুহুল আমিন। এবং সহযোগী সম্পাদক রাজু আহমেদ দায়িত্বরত রয়েছেন। পাশাপাশি নিউজ রুম ডেপুটি ইনচার্জ আরিফ আহমেদ সহ নিউজ রুমের অনন্য দায়িত্ব্যশীল ব্যাক্তিদের অকালন্ত পরিশ্রমের পাঠক প্রিয় আজকের দৈনিক অধিকার পরিবার।

অধিকার ডট নিউজ এর নিউজ রুম কাঠামো

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ইন্টার্নশিপ থেকে যা কিছু শিখেছি

স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের জার্নালিজম, কমিউনিকেশন এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের ছাত্র হিসেবে চার বছর আমি যেসব তাত্ত্বিক বিষয় সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করেছি। তাই “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে আমি সেই জ্ঞান ব্যবহারিক জীবনে প্রয়োগ করার সুযোগ পেয়েছি। এতে আমি ব্যবহারিক ক্ষেত্রে অনেক কিছু শিখেছি। তার মধ্যে রয়েছে রিপোর্টিং, এডিটিং এছাড়াও কিভাবে অনলাইনে নিউজ পাবলিশ হয় ইত্যাদি।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

“সাননিউজ২৪x৭ডটকম” আমার কাজগুলো

“সাননিউজ২৪x৭ডটকম” ১৫৬ দিনের শিক্ষানবিশ হিসেবে প্রশিক্ষণকালীন ৪০টি প্রতিবেদন করেছি যা প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়াও বেশকিছু প্রতিবেদন বাদ দেওয়া হয়েছে।
প্রতিবেদন গুলোর শিরোনাম নিম্মে দেওয়া হলো :
 বর্ণমালার উদ্যোগে পথ শিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১৯:৪৯
 নোয়াখালীতে রোহিঙ্গা যুবক আটক ০৮ ডিসেম্বর ২০২০, ২০:০৩
 ভোলায় জয়িতা সম্মাননা পেলেন ১০ সংগ্রামী নারী ০৯ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬:৪৪
 ফের সিসিইউতে সম্রাট ০৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:৪৭
 ফরিদপুর পৌর নির্বাচনে পুনরায় ভোটের দাবি বিএনপির ১৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮:৩৩
 সীমান্তে হত্যা বন্ধে সরকারের কোনো পদক্ষেপ নেই : রিজভী ২৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯:০৩
 ষড়যন্ত্র হচ্ছে পুরো বাংলাদেশের বিরুদ্ধে : শামীম ওসমান ২৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২০:৩২
 জয়পুরহাটে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ২৮ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭:৪৯
 সীমান্তে যৌথ অভিযান চালাবে বিজিবি-বিএসএফ ৩০ ডিসেম্বর ২০২০, ১৩:২১
 পাকিস্তানের লড়াই ছাপিয়ে নিউজিল্যান্ডের শ্বাসরুদ্ধকর জয় ৩০ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:৩৩
 চট্টগ্রামে চিংড়িতে জেলি পাওয়ায় ব্যবসায়ীদের জরিমানা ৩১ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:১৪
 সুনামগঞ্জে কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক গ্রেফতার ০৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:৩৪
 সাতক্ষীরায় ছাত্রলীগ এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ০৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৩৫
 সাতক্ষীরায় ছাত্রলীগ এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ০৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৫৩
 কুড়িগ্রামে ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণের উদ্বোধন ০৫ জানুয়ারি ২০২১, ১৭:০৭
 আড়াই কোটি মানুষ টিকা পাবে, বাকিদের কী হবে : জাপা চেয়ারম্যান ০৭ জানুয়ারি ২০২১, ২১:১৬
 ভয় দেখিয়ে লাভ নেই, মৃত্যুর আগপর্যন্ত সত্য বলব : কাদের মির্জা ০৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:১০
 পেসমেকার বসানো হলো মওদুদের শরীরে ০৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৮:৩০
 ২৫ জানুয়ারির মধ্যে ভ্যাকসিন আসছে : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ১১ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:২৫
 টিকা নিবন্ধনের অ্যাপ তৈরিতে কোনো টাকা খরচ হচ্ছে না ১২ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৪৫
 ভারতের চেয়ে দ্বিগুণ দামে টিকা কিনবে বাংলাদেশ ১২ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৫৫
 মাঠে ফেরার অপেক্ষায় নেইমার ১২ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:৫৪
 ফিট হয়েও চিন্তিত সাইফউদ্দিন ১২ জানুয়ারি ২০২১, ১১:৪৫
 মার্কিন বিরোধিতার মাঝেই আরও এস-৪০০ কিনছে তুরস্ক ১৩ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৫৪
 স্কুল খুলতে বলছে ইউনিসেফ ১৩ জানুয়ারি ২০২১, ১১:১৭
 দল নিয়ে শীঘ্রই বাংলাদেশ আসতে চান ওয়ালশ ১৩ জানুয়ারি ২০২১, ১১:৪৫
 বাংলাদেশ ও ভারতের পুলিশ সন্ত্রাসীদের মোকাবেলায় একসঙ্গে কাজ করবে ১৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:৫৬

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

সুপারিশ

 নিম্ন স্তরের যেকোন অভিযোগ বা পরামর্শ অতিস্পষ্ট ভাষায় উচ্চ স্তরকে জানাতে হবে যাতে কোন ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি না হয়। এক্ষেত্রে লিখিত ভাবে জানানোই ভালো।
 উচ্চ পর্যায় যখন কোন পরামর্শ নিম্ন পর্যায়কে দিবে তখন তাকে খেয়াল রাখতে হবে যে গেইট কীপার ঠিকমতো সেটি নিম্ন পর্যায়কে দিল কিনা।
 “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” লোকবল আরো বাড়ানো প্রয়োজন।
 নারী কর্মী নাই, সন্তোষজনক হারে নারী কর্মী নিয়োগ করতে হবে।
 অনলাইন সাংবাদিকতায় একজন সাংবদিককে সাংবাদিকতার পাশাপাশি প্রযুক্তিগত দিক থেকেও দক্ষ হতে হয়। তাই সাংবাদিকদের সকল বিষয়ে দক্ষ করে তুলতে হবে। যাতে একজন রিপোর্টার রিপোর্ট তৈরির পাশাপাশি অন্যান্য কারিগরি দিক বুঝতে পারেন এবং প্রয়োজনীয় সময়ে কাজ চালিয়ে নিতে পারেন।
 “সাননিউজ২৪x৭ডটকম” একটি ক্রিয়েটিভ টিম থাকা প্রয়োজন যারা নিয়মিত সংবাদের পাশাপাশি অনুসন্ধানী সংবাদ তৈরি করতে সাংবাদিকের সুযোগ ও আগ্রহ তৈরি করবে।
 মালিককে সব সময়ই প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের বিভিন্ন সুবিধা অসুবিধা সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে।
 প্রতিষ্ঠানের সকল স্তরের কর্মীদের পারষ্পরিক মিথষ্ক্রিয়ার ব্যাপারে উৎসাহ দিতে হবে।
 প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের মাঝে আন্ত:ব্যক্তিক যোগাযোগ ফলপ্রসু করার জন্য মাঝে মাঝে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কিংবা পিকনিকের আয়োজন করা যেতে পারে।
 একটি গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের প্রাণ হচ্ছে রিপোর্টার , ফলে রিপোর্টারের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বাড়াতে হবে।
 কাজের মান বাড়ানোর জন্য বিভাগভিত্তিক আলাদা টিম করে দায়িত্ব বন্টন করতে হবে। যেমন ন্যাশনাল ডেস্কে ৩/৪ জনের টিম করতে হবে, রাজনীতি বিটে ৩/৪ জন, আন্তার্জাতিক ডেস্কে ৩/৪ জন, স্পোর্টস ডেস্কে ৩/৪ জন, এইভাবে প্রতি বিভাগে টিম করলে কাজের মান বাড়বে, তেমনী দক্ষ হবে প্রতিষ্ঠানের জনবল।

 

 

উপসংহার

বর্তমান এই তথ্য বিষ্ফোরণের যুগে গণমাধ্যমের সহজ ও ব্যাপক বিস্তার এবং প্রযুক্তিগত উন্নতির ফলে গণমাধ্যম আজ আমাদের কাছে অনেক বেশি স্বাভাবিক একটি বিষয়ে পরিণত হয়েছে। আজ এমন একটি অবস্থানে আমরা আছি যেখানে গণমাধ্যম ছাড়া আমাদের জীবন অসম্ভব অর্থাৎ বলা চলে এটি আমাদের জীবনকে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করছে।
তাই জার্নালিজম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ (জেসিএমএস) বিভাগের ছাত্র হিসেবে আমরা শ্রেণীকক্ষে যেসব তাত্ত্বিক জ্ঞানার্জন করি বাস্তব ক্ষেত্রে তা প্রয়োগের সুযোগ ঘটে ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামের মাধ্যমে। এছাড়া ভবিষ্যতে চাকরি প্রাপ্তির ক্ষেত্রেও ইন্টার্নশিপ সহায়ক হিসেবে কাজ করে। যারা রিক্রুটমেন্ট প্রসেস এর মাধ্যমে চাকরি পায় তাদের চেয়ে ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামের শিক্ষানবিশরা অনেকখানি এগিয়ে থাকে কাজে-কর্মের দিক থেকে, প্রতিষ্ঠানের নিয়ম-কানুন পালনের দিক থেকেও।
কেননা স্বল্প সময়ের জন্য হলেও ইন্টার্নরা প্রতিষ্ঠানের কার্যবিধি, পলিসি, সর্বোপরি কাজের পরিবেশ সম্পর্কে একটা সম্যক ধারণা ঠিকই পেয়ে যায়।
“সাননিউজ২৪x৭ডটকম” ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে আমি আমার তাত্ত্বিক জ্ঞানকে ব্যবহারিক ক্ষেত্রে কাজে লাগাতে পেরেছি। সংবাদ মূল্য, সংবাদের ট্রিটমেন্ট এবং সংবাদ জ্ঞান সম্পর্কে মোবাইল জার্নালিজমে স্পষ্ট হওয়ার পাশাপাশি প্রাতিষ্ঠানিক যোগাযোগের দক্ষতা অনেকাংশেই বৃদ্ধি পেয়েছে।

তথ্যসূত্র

 প্রতিবেনটির তথ্য আমার অভিঙ্গতা লব্ধ।
 সংবাদ লেখা ও সম্পাদনা – সজিব সরকার।
 বাংলাদেশের সংবাদপত্র – সুব্রত শংকর ধর
 সময় টিভি অনলাইন
 দৈনিক নয়াদিগন্ত
 অধিকার ডট নিউজ
 বাংলা উইকিপিডিয়া
 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *