এতদিন ভুল করেছি: অনন্ত জলিল

Spread the love

অনন্ত জলিলের ক্ষোভ প্রকাশের অংশটুকু তুলে ধরা হলো-

কিছুদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়াতে ‘দিন: দ্য ডে’র বাজেট নিয়ে বেশ আলোচনা হচ্ছে। মিস্টার মোর্তেজা অতাশ জমজম বাংলায় একটি এগ্রিমেন্ট পোস্ট করেন। যাতে দেখানো হয়েছে, তাকে আমার ৪-৫ লাখ ডলার দেওয়ার কথা; তা থেকেই আপনারা নিউজ করে যাচ্ছেন মুভিটির বাজেট ৪ কোটি টাকা। আপনাদের কোনো যাচাইয়ের সময় নেই। কে কতটুকু আলোচনা-সমালোচনা করতে পারেন, সেটা নিয়ে প্রতিযোগিতা লেগে গেছে। এ কারণেই আমি কয়েক দিন চুপ ছিলাম।

আসলে দেশের জন্য আমার এতকিছু করার কারণটাই কি? যেকোনো জায়গায় দুর্যোগ হলে অনন্ত জলিল ঝাঁপিয়ে পড়ে। একটা গরিব মানুষের জন্য অনন্ত জলিল ঝাঁপিয়ে পড়বে। মানুষের সহযোগিতায় ঝাঁপিয়ে পড়বে। কিন্তু বাংলাদেশে আমার জন্য কে ঝাঁপিয়ে পড়ল?

আমি একটা ফ্যান ক্লাব করেছি। যাদেরকে ঈদের সময় ২৫ লাখ টাকা দিয়েছি। কিছুদিন আগে সিলেটেও ৩০ লাখ টাকা দিয়ে সাহায্য করেছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্যার্তদের জন্য ৫ লাখ টাকা দিয়েছি। এই কয়েক দিন আমি চুপ ছিলাম, দেখছিলাম তারা কি আমার জন্য কোনো আন্দোলন করেন কি না। কিন্তু তেমন কিছুই হয়নি। আপনারা আমাকে সিনেমার স্টারই বানিয়ে দিলেন। ব্যক্তি অনন্ত জলিল যে একজন ভালো মানুষ সেটা আপনারা অনুভব করেননি। আজ থেকে আমাকে আমার পরিবর্তন করতে হবে।

আমার বাসায় প্রতিদিন ১০-১৫ জন লোক সাহায্যের জন্য এসে দাঁড়িয়ে থাকে। সেটা আপনাদের কখনোই দেখাই না। এই যে প্রতিটি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি, আমার মনে হয় সেটা আমার ভুল হচ্ছে। দেশের মানুষকে সাহায্য করার জন্য আমি কোন জায়গায় না ছুটে যাই।

করোনার সময়েও আমার ভয় ছিল না। আমি বিভিন্ন এলাকায়, বস্তিতে, বিভিন্ন জায়গায় ছুটে গিয়েছি। কখনও চিন্তা করি নাই, আমি মরে যাব কি না! হায়াৎ না থাকলে মরে যাব। আমি চিন্তা করেছি, আল্লাহ আমাকে যতটুকু দিয়েছে, ততোটুকু দিয়েই মানুষের পাশে দাঁড়াব। এতদিন যা করেছি, ভুল করেছি। আপনারা আমাকে বদলে দিয়েছেন। এখন থেকে আমিও অন্যান্য সেলিব্রিটির মতো থাকার চেষ্টা করব। অনন্ত জলিলকে আপনারা মেরে ফেলেছেন এবার। আমার চোখ খুলে দেওয়ার জন্য আপনাদের অনেক ধন্যবাদ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.